সোমবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৫

বইঃ সুনান আবূ দাঊদ (তাহক্বীক্বকৃত) - ফ্রি ডাউনলোড

বইঃ সুনান আবূ দাঊদ (তাহক্বীক্বকৃত) - ফ্রি ডাউনলোড



বইঃ সুনান আবূ দাঊদ (তাহক্বীক্বকৃত) - ফ্রি ডাউনলোড

হাদীসের সুনান গ্রন্থগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো সুনান আবূ দাউদ। ইমাম আবূ দাউদ (রহ) সুনিপুণভাবে ফিকহী মাসআলা অনুসারে এই হাদীসগ্রন্থটিকে সাজিয়েছেন। তাইতো ফিক্বাহবিদগণ বলেন : “একজন মুজতাহিদের পক্ষে ফিক্বাহর মাসআলা বের করতে আল্লাহর কিতাব কুরআন মাজীদের পরে এই সুনান আবূ দাউদই যথেষ্ট। সুনান আবূ দাউদের অনেকগুলো অনুবাদ বাজারে রয়েছে। সেগুলো কোনটিই তাহক্বীককৃত (সহীহ ও যইফ আলাদকৃত) নয়। আল্লামা আলবানী একাডেমীকৃত এই গ্রন্থটি অনুবাদ করেছেন আহসানুল্লাহ বিন সানাউল্লাহ। বইটির তাহক্বীক নেয়া হয়েছে শায়খ নাসিরুদ্দীন আলবানী (রহ)-এর তাহক্বীক হতে।

রবিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৫

বইঃ হাদীসের নামে জালিয়াতি – প্রচলিত মিথ্যা হাদীস ও ভিত্তিহীন কথা (ফ্রি ডাউনলোড)

বইঃ হাদীসের নামে জালিয়াতি – প্রচলিত মিথ্যা হাদীস ও ভিত্তিহীন কথা (ফ্রি ডাউনলোড)



বইঃ হাদীসের নামে জালিয়াতি – প্রচলিত মিথ্যা হাদীস ও ভিত্তিহীন কথা (ফ্রি ডাউনলোড)

বইঃ হাদীসের নামে জালিয়াতি – প্রচলিত মিথ্যা হাদীস ও ভিত্তিহীন কথা
লিখেছেনঃ ড. খোন্দকার আব্দুলাহ জাহাঙ্গীর
{পি-এইচ. ডি. (রিয়াদ), এম. এ. (রিয়াদ), এম.এম. (ঢাকা)
অধ্যাপক, আল-হাদীস বিভাগ,
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া}

সংক্ষিপ্ত বর্ণনাঃ কুরআন কারীমের পরে রাসূলুলাহ (সাঃ)-এর হাদীস ইসলামী জ্ঞানের দ্বিতীয় উৎস ও ইসলামী জীবন ব্যবস্থার দ্বিতীয় ভিত্তি। মুমিনের জীবন আবর্তিত হয় রাসূলুলাহ (সাঃ)-এর হাদীসকে কেন্দ্র করে। হাদীস ছাড়া কুরাআন বুঝা ও বাস্তাবায়ন করাও সম্ভব নয়। হাদীসের প্রতি এই স্বভাবজাত ভালবাসা ও নির্ভরতার সুযোগে অনেক জালিয়াত বিভিন প্রকারের বানোয়াট কথা ‘হাদীস’ নামে সমাজে প্রচার করেছে। সকল যুগে আলিমগণ এসকল জাল ও বানোয়াট কথা নিরীক্ষার মাধ্যমে চিহ্নিত করে মুসলমানদেরকে সচেতন করেছেন।

শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৫

বইঃ তাহক্বীক্ব বুলুগুল মারাম - ফ্রি ডাউনলোড

বইঃ তাহক্বীক্ব বুলুগুল মারাম - ফ্রি ডাউনলোড



বইঃ তাহক্বীক্ব বুলুগুল মারাম - ফ্রি ডাউনলোড

সংক্ষিপ্ত বর্ণনাঃ হাদীসের সংকলন গ্রন্থগুলোর মধ্যে ইবনে হাজার আসকালানী (রহ) রচিত বুলুগুল মারাম মিন আদিল্লাতিল আহকাম প্রসিদ্ধ। এটি এমন একটি গ্রন্থ যা মধ্যপ্রাচ্য ছাড়াও প্রায় সারা বিশ্বের ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচির অন্তভূক্ত।

শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৫

বইঃ আল-লু’লু’ ওয়াল মারজান (ফ্রি ডাউনলোড)

বইঃ আল-লু’লু’ ওয়াল মারজান (ফ্রি ডাউনলোড)




বইঃ আল-লু’লু’ ওয়াল মারজান (ফ্রি ডাউনলোড)

সংক্ষিপ্ত বর্ণনাঃ ইসলামী শরীআতের অন্যতম উত্স হাদীস। এটিকে সহীহ সনদে ও মতনে সুসংরক্ষিত। এই হাদীসগুলো বিভিন্ন মানের দিক দিয়ে সর্বাধিক উত্তম হলো মুত্তাফাকুন আলাইহি। যেসব হাদীস একই সাথে ইমাম বুখারী (রহ.) ও ইমাম মুসলিম (রহ.) স্বীয় গ্রন্থে সংকলন করেছেন। এসব হাদীস উভয় ইমাম সহীহ বলে একমত পোষণ করেছেন সেই সাথে গুরুত্বপূর্ণ মনে করে স্বীয় হাদীস গ্রন্থে সংকলন করেছেন। এই হাদীসগুলো বেছে বেছে সংকলন করেছেন আল্লামা ফুয়াদ আল বাকী (রহ)। এই সংকলেনর নাম করণ করেছেন “আল লূ’লু ওয়াল মারজান” এটি বাংলা ভাষায় অনুবাদ হয়েছে। এটি প্রকাশ করেছে তাওহীদ পাবলিকেশন্স।

রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৫

বইঃ আল-বিদায়া ওয়ান নিহায়া - ফ্রি ডাউনলোড

বইঃ আল-বিদায়া ওয়ান নিহায়া - ফ্রি ডাউনলোড



বইঃ আল-বিদায়া ওয়ান নিহায়া - ফ্রি ডাউনলোড

“আল-বিদায়া ওয়ান নিহায়া” Al Bidaya Wal Nihaya প্রখ্যাত মুফাসসির ও ইতিহাসবেত্তা আল্লামা ইবনে কাসীর (রহ) প্রণীত একটি সুবৃহৎ ইতিহাস গ্রন্থ। এই গ্রন্থের সৃষ্টির শুরু তথা আরশ, কুরসী, নভোমন্ডল, ভূমন্ডল প্রভৃতি এবং সৃষ্টির শেষ তথা হাশর-নশর, কিয়ামত, জান্নাত, জাহান্নাম প্রভৃতি সম্বন্ধে আলোচনা করা হয়েছে।

বইঃ সহীহ্ আক্বীদার মানদন্ডে তাবলীগী নিসাব - ফ্রি ডাউনলোড

বইঃ সহীহ্ আক্বীদার মানদন্ডে তাবলীগী নিসাব - ফ্রি ডাউনলোড



বইঃ সহীহ্ আক্বীদার মানদন্ডে তাবলীগী নিসাব - ফ্রি ডাউনলোড


বই: সহীহ্ আক্বীদার মানদন্ডে তাবলীগী নিসাব
লিখেছেন: মুরাদ বিন আমজাদ 
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ১০৯ 
প্রকাশনায়: তাওহীদ পাবলিকেশন্স, হাজী আব্দুল্লাহ সরকার লেন, বংশাল, ঢাকা।

শুক্রবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৫

বইঃ তাহকীক সুনান ইবনু মাজাহ - ফ্রি ডাউনলোড

বইঃ তাহকীক সুনান ইবনু মাজাহ - ফ্রি ডাউনলোড


বইঃ তাহকীক সুনান ইবনু মাজাহ - ফ্রি ডাউনলোড

সুনান ইবনে মাজাহ প্রসিদ্ধ ছয়টি হাদীস গ্রন্থগুলোর মধ্যে অন্যতম। হাদীস শাস্ত্রে ইমাম ইবনে মাজাহর অন্যতম অবদান এটি। ইমাম ইবন মাজাহ (রহ) সারাজীবন গভীর সাধনা, নিরবচ্ছিন্ন অধ্যবসায় ও ঐকান্তিক অভিনিবেশের মাধ্যমে হাদীস সংগ্রহ ও লিপিবদ্ধ করেন। এ গ্রন্থে অনেক মূল্যবান হাদীস রয়েছে যা অন্য কুতুবে সিত্তাহতে নেই। গ্রন্থটিতে ইমাম ইবনে মাজাহ ফিকহী মাসআলার তরতীব অনুযায়ী বিন্যস্ত করেছেন।  হাদীসের বিন্যাস পদ্ধতি অনুপম ও অনন্য সাধারণ। সেই সাথে কোন পুন:পুন: হাদীস উল্লেখ করা হয়নি। এর বাব (পরিচ্ছেদ) গুলো দীর্ঘ নয়। এই গ্রন্থটির পূর্ণাঙ্গ তাহকীক সহ অনুবাদ ও প্রকাশ করেছে তাওহীদ পাবলিকেশন্স।

বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০১৫

নারী-পুরুষে দেখাদেখি, নির্জনে অবস্থান ও সহাবস্থান সংক্রান্ত বিবিধ ফাতওয়া (১ম পর্ব)

 নারী-পুরুষে দেখাদেখি, নির্জনে অবস্থান ও সহাবস্থান সংক্রান্ত বিবিধ ফাতওয়া (১ম পর্ব)



১ম পর্ব | ২য় পর্ব

সূচিপত্র
ক্রম   বিষয়
1.     ভূমিকা
2.     শিক্ষার ক্ষেত্রে নারী-পুরুষে সহাবস্থানের বিধান
3.     স্কুল, মাদরাসা ও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ছেলে-মেয়ের মাঝে মেলামেশার ভয়াবহ ঝুঁকি
4.     নারী-পুরুষ সম্মিলিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে লেখাপড়ার বিধান
5.     নারী ও পুরুষে সহশিক্ষার ক্ষেত্রে ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি

নারী-পুরুষে দেখাদেখি, নির্জনে অবস্থান ও সহাবস্থান সংক্রান্ত বিবিধ ফাতওয়া (২য় পর্ব)

 নারী-পুরুষে দেখাদেখি, নির্জনে অবস্থান ও সহাবস্থান সংক্রান্ত বিবিধ ফাতওয়া (২য় পর্ব)



১ম পর্ব | ২য় পর্ব

শিল্প-কারখানা ও অফিস-আদালতে নারী-পুরুষে সহাবস্থানের বিধান

প্রশ্ন: শিল্প-কারখানায় অথবা অনিসলামিক অফিসসমূহে পুরুষদের মতো করে নারীদের কাজকারবার ও লেনদেনের বিধান কী? আর ঐ জীবনের বিধান কী হবে, যে ভয়াবহ রোগের কারণে ধ্বংসের মুখোমুখি হয়েছে, উল্লিখিত এ পরিস্থিতিতে সে রোগের চিকিৎসার বিষয়টি মুসলিম নারীকে বেপর্দা করার দিকে নিয়ে যায়, যদিও ইসলামী তথা মুসলিম দেশসমূহের ডাক্তারগণ সবই পুরুষ? 

শনিবার, ৩ অক্টোবর, ২০১৫

বিবাহের অভিভাবক ও শর্তাবলী, অভিভাবকের বাধা ও করণীয়

বিবাহের অভিভাবক ও শর্তাবলী, অভিভাবকের বাধা ও করণীয়



বিবাহের অভিভাবক ও শর্তাবলী, অভিভাবকের বাধা ও করণীয়

রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, “অভিভাবক ব্যতীত কোন বিবাহ নেই।” (তিরমিযী) তিনি আরো বলেন, “যে নারী নিজে নিজের বিবাহ সম্পন্ন করবে তার বিবাহ বাতিল বাতিল বাতিল। অভিভাবকরা যদি ঐ নারীর বিবাহে বাধা সৃষ্টি করে, তবে যার ওলী নেই সুলতান বা শাসক তার ওলী বা অভিভাবক হবে।” (আহমাদ, তিরমিযী, আবু দাউদ, ইবনে মাজাহ)
তাই যে কোন নারীর বিবাহের জন্য ওলী বা অভিভাবক আবশ্যক। অভিভাবক উপযুক্ত হওয়ার জন্য ৬টি শর্ত আছেঃ

শুক্রবার, ২ অক্টোবর, ২০১৫

কুরবানী সংক্রান্ত কতিপয় ভুল-ত্রুটি

কুরবানী সংক্রান্ত কতিপয় ভুল-ত্রুটি



কুরবানী সংক্রান্ত কতিপয় ভুল-ত্রুটি

আলহামদুলিল্লাহি রাব্বিল আলামীন, ওয়াস্ সালাতু ওয়াস্ সালামু আলা রাসূলিহিল কারীম, আম্মা বাদঃ
অতঃপর এই সংক্ষিপ্ত লেখায় আমরা কুরবানী সংক্রান্ত কতিপয় ভুল-ত্রুটি আলোকপাত করার ইচ্ছা করেছি, যেন এই ইবাদতটি আমরা সঠিক ভাবে সম্পাদন করতে পারি এবং ভুল-ত্রুটি থেকে দূরে থেকে পূর্ণ সওয়াবের অধিকারী হতে পারি। ওয়ামা তাওফীকী ইল্লা বিল্লাহ।

সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

যে সকল হারামকে মানুষ তুচ্ছ মনে করে থাকে (১ম পর্ব)

সূচিপত্র
ক্রম   বিষয়
1.     ভূমিকা
2.     শির্ক
3.     কবরপূজা
4.     গায়রুল্লাহর নামে যবেহ করা
5.     হালালকে হারাম ও হারামকে হালাল মনে করা

যে সকল হারামকে মানুষ তুচ্ছ মনে করে থাকে (২য় পর্ব)

৩১. সুদ খাওয়া
আল্লাহ তা‘আলা সূদখোর ব্যতীত আর কারো বিরুদ্ধে স্বয়ং যুদ্ধের ঘোষণা দেননি। তিনি বলেন,
﴿يَٰٓأَيُّهَا ٱلَّذِينَ ءَامَنُواْ ٱتَّقُواْ ٱللَّهَ وَذَرُواْ مَا بَقِيَ مِنَ ٱلرِّبَوٰٓاْ إِن كُنتُم مُّؤۡمِنِينَ ٢٧٨ فَإِن لَّمۡ تَفۡعَلُواْ فَأۡذَنُواْ بِحَرۡبٖ مِّنَ ٱللَّهِ وَرَسُولِهِۦۖ وَإِن تُبۡتُمۡ فَلَكُمۡ رُءُوسُ أَمۡوَٰلِكُمۡ لَا تَظۡلِمُونَ وَلَا تُظۡلَمُونَ ٢٧٩﴾ [البقرة: ٢٧٨،  ٢٧٩] 
হে বিশ্বাসীগণ! তোমরা আল্লাহর তাকাওয়া অবলম্বন কর এবং সুদের যা অবশিষ্ট আছে, তা পরিত্যাগ কর যদি তোমরা ঈমানদার হও। আর যদি তোমরা তা না কর, তাহলে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের পক্ষ থেকে যুদ্ধের ঘোষণা শোন” [সূরা আল-বাকারা, আয়াত: ২৭৮-২৭৯]

শুক্রবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

জুমু‘আ: ফযীলত ও বিধি-বিধান



 সূচিপত্র
 
ক্রম   বিষয়
1.     ভূমিকা
2.     জুমু‘আর দিনের বিশেষ বিশেষ বৈশিষ্ট্য
3.     জুমু‘আর দিনের বিধি-বিধান
4.     জুমু‘আর দিনের ওয়াজিব বা ফরযসমূহ
5.     জুমু‘আর দিনের মুস্তাহাব আমলসমূহ
6.     জুমু‘আর দিনের নিষিদ্ধ কার্যাদি
7.     জুমু‘আর সালাত সম্পর্কে বিভিন্ন আহকাম

রবিবার, ৯ আগস্ট, ২০১৫

মুমিন নারীদের বিশেষ বিধান (১ম পর্ব)

সূচীপত্র

১ ভূমিকা
২ প্রথম পরিচ্ছেদ: সাধারণ বিধান
৩ ইসলাম পূর্ব নারীর মর্যাদা
৪ ইসলামে নারীর মর্যাদা
৫ ইসলামের শত্রু ও তার দোসররা নারীর ইজ্জত হরণ করে কী চায়?
৬ কতিপয় শর্ত সাপেক্ষে ঘরের বাইরে নারীর কাজ করা বৈধ

বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট, ২০১৫

মুমিন নারীদের বিশেষ বিধান (২য় পর্ব)

পঞ্চম পরিচ্ছেদ
নারীদের সালাত সংক্রান্ত বিশেষ হুকুম

হে মুসলিম নারী, সালাতের সকল শর্ত, রুকন ও ওয়াজিবসহ উত্তম সময়ে সালাত আদায় কর। আল্লাহ তাআলা মুমিনদের মায়েদের উদ্দেশ্যে বলেন:
﴿وَأَقِمۡنَ ٱلصَّلَوٰةَ وَءَاتِينَ ٱلزَّكَوٰةَ وَأَطِعۡنَ ٱللَّهَ وَرَسُولَهُ﴾ [الاحزاب: ٣٣] 
“আর তোমরা সালাত কায়েম কর, যাকাত প্রদান কর এবং আল্লাহ ও তার রাসূলের আনুগত্য কর”। [সূরা আল-আহযাব, আয়াত: ৩৩]      
এ নির্দেশ সকল মুসলিম নারীর জন্য সমানভাবে প্রযোজ্য। কারণ, সালাত ইসলামের দ্বিতীয় রুকন, ইসলামের প্রধান স্তম্ব। সালাত ত্যাগ করা কুফরী, যা মানুষকে ইসলাম থেকে বের করে দেয়। যার সালাত নেই সে নারী হোক বা পুরুষ হোক দীন ও ইসলামে তার কোনো অংশ নেই। শরঈ কারণ ব্যতীত সালাত বিলম্ব করা সালাত বিনষ্ট করার শামিল।

বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই, ২০১৫

কবরের শাস্তি ও শান্তি সম্পর্কে কতিপয় মাসআলা: বারযাখী জীবন

কবরের শাস্তি ও শান্তি সম্পর্কে কতিপয় মাসআলা: বারযাখী জীবন



কবরের শাস্তি ও শান্তি সম্পর্কে কতিপয় মাসআলা: বারযাখী জীবন

সূচিপত্র
   
ক্রম       বিষয়

1.    অনুবাদকের কথা
2.    বারযাখী জীবন
3.    আকাশ ও জমিনে মুমিন আত্মার বিচরণ
4.    আকাশ ও জমিনে খারাপ আত্মার ভ্রমণ
5.    কবরের শাস্তি ও শান্তি
6.    কবরের শাস্তি ও শান্তি ---মতামত

মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০১৫

জান্নাতের পথে বাধা সৃষ্টি করে যে সব কাজ

জান্নাতের পথে বাধা সৃষ্টি করে যে সব কাজ



জান্নাতের পথে বাধা সৃষ্টি করে যে সব কাজ

১. ঈমান না আনা 
রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন,
لا يَدْخُلُ الْجَنَّةَ إِلا مُؤْمِنٌ
“ঈমানদার ব্যতীত কেউ জান্নাতে প্রবেশ করবে না।” (বুখারী ও মুসলিম)

সোমবার, ২০ জুলাই, ২০১৫

তওবা: জান্নাতের সোপান

তওবা: জান্নাতের সোপান



তওবা: জান্নাতের সোপান

ভূমিকা: কোন মানুষই ভুলের ঊর্ধ্বে নয়। তবে সে ব্যক্তিই উত্তম যে ভুল করার পর তওবা করে। আমাদের সবারই ত্রুটি-বিচ্যুতি রয়েছে। কখনও মুখ ফসকে মুখের দ্বারা গুনাহ হয়েছে। অসাক্ষাতে কারও সমালোচনা করেছি, কাউকে গালি দিয়েছি, কখনো অন্যায়ভাবে অন্যের সম্পদের প্রতি হাত বাড়িয়েছি, কখনও এমন জিনিসের দিকে তাকিয়েছি যাতে আল্লাহ অসন্তুষ্ট হন। এভাবে কত ধরণের গুনাহর কাজ আমরা করেছি! এজন্যই দয়াময় আল্লাহ তায়ালা বান্দাদের উপর তওবা করা অপরিহার্য করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন,
وَتُوبُوا إِلَى اللَّهِ جَمِيعاً أَيُّهَا الْمُؤْمِنُونَ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ
“হে মুমিনগণ, তোমরা সকলে আল্লাহর নিকট তওবা কর। যাতে তোমরা সফলতা লাভ করতে পার।”[1]

রবিবার, ২১ জুন, ২০১৫

রোযাবস্থায় বীর্যপাত এবং স্বপ্নদোষের বিধান

রোযাবস্থায় বীর্যপাত এবং স্বপ্নদোষের বিধান



রোযাবস্থায় বীর্যপাত এবং স্বপ্নদোষের বিধান

আলহামদুলিল্লাহ্ ওয়াস সালাতু ওয়াস সালামু আলা রাসূলিল্লাহ, আম্মাবাদঃ
রামাযান মাসে সাউম পালনকারী ভাইদের পক্ষ থেকে উপরোক্ত বিষয়ে প্রায় প্রায় প্রশ্ন করা হয়। এ সম্পর্কে শরীয়ার সঠিক বিধান না জানা থাকার কারণে অনেকে অনেক রকমের ধারণা করে। কেউ মনে করে তার রোযা নষ্ট হয়ে গেছে, কেউ বলে রোযা মাকরূহ হয়ে গেছে, কেউ ভাবে তার দ্বারা গুনাহ হয়ে গেছে আর কেউ সংশয়ে থাকে। তাই সংক্ষিপ্তাকারে বিষয়টির শারঈ সমাধান উল্লেখ করার নিয়ত করেছি। আল্লাহই তাওফীকদাতা।

শুক্রবার, ১২ জুন, ২০১৫

সহীহ হাদীসের আলোকে সাওম বিশ্বকোষ (৩য় পর্ব)

সহীহ হাদীসের আলোকে সাওম বিশ্বকোষ (৩য় পর্ব)



১ম পর্ব | ২য় পর্ব | ৩য় পর্ব


তৃতীয় অধ্যায় 
সালাতুত তারাবীহ

রমযানে ঈমান ও সাওয়াবের আশায় যে রাত জেগে ইবাদত করে তার ফযীলত:
আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণনা করেনতিনি বলেনরাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম  বলেছেন,
«مَنْ قَامَ رَمَضَانَ إِيمَانًا وَاحْتِسَابًا، غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِهِ»
“যে ব্যক্তি রমযানের রাতে সওয়াবের আশায় রাত জেগে ইবাদত করেতার পূর্বের গুনাহ মাফ করে দেওয়া হয়”[244]
আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিততিনি বলেনআমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে রমযান সম্পর্কে বলতে শুনেছি,
«مَنْ قَامَهُ إِيمَانًا وَاحْتِسَابًا، غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِهِ»
“যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে সাওয়াব লাভের আশায় কিয়ামে রমযান অর্থ্যাৎ তারাবীর সালাত আদায় করবে তার পূর্ববর্তী গুনাহসমূহ মাফ করে দেওয়া হবে”[245]